ঢাকা, রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০ , , ৪ শা'বান ১৪৪১

একজন বাংলাদেশিকেও ফেরত পাঠাতে দেব না: মমতা

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: মার্চ ৪, ২০২০ ১২:২৩ দুপুর

পশ্চিমবঙ্গে থাকা বাংলাদেশিরা যারা ভোট দেন তারা সবাই ভারতীয় নাগরিক বলে মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকি রাজ্য থেকে একজন বাংলাদেশিকেও ফেরত পাঠাতে দেবেন না বলেও হুঁশিয়ার করেন তিনি।

এদিকে, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে ভারতের অভ্যন্তরীণ ইস্যু উল্লেখ করে জাতিসংঘকে বিষয়টি নিয়ে নাক না গলানোর আহ্বান জানিয়েছে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। এরমধ্যেই, সিএএ নিয়ে ভারতে যে সংঘাতময় পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে তা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে যুক্তরাজ্য।

মঙ্গলবার উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে এক জনসভায় অংশ নেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, পশ্চিমবঙ্গে থাকা বাংলাদেশীরা যারা লোকসভা ও বিধানসভা নির্বাচনে ভোট দেন তাদের নতুন করে নাগরিকত্বের আবেদন করতে হবে না। তারা সবাই ভারতের নাগরিক উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, পশ্চিমবঙ্গে বসবাসকারী কোনো শরণার্থীকে নাগরিকত্ব থেকে বঞ্চিত করা হবে না।

এদিকে, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন যে আরজি দাখিল করেছে তার তীব্র সমালোচনা করেছে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। সার্বভৌম রাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কোনোও তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ করা উচিৎ নয় বলে মন্তব্য করেছেন মুখপাত্র রাভিশ কুমার। সাংবিধানিকভাবে সিএএ বৈধ বলেও জানান তিনি।

এরমধ্যেই, নাগরিকত্ব আইন নিয়ে মন্তব্য করায় পাঁচ বিদেশী নাগরিককে দেশ ছাড়তে বলেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এমনকি আইনটিতে সমর্থন না দেয়ায় মহারাষ্ট্রের দুই বিজেপি নেতাকেও দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

এদিকে, বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনটি ঘিরে ভারতে যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে তা নিয়ে আবারও যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে উল্লেখ করে, শান্তি প্রতিষ্ঠায় পদক্ষেপ নিতে ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

গেল বছরের ডিসেম্বেরে নাগরিকত্ব আইন সংশোধন করে ভারত সরকার।




%d bloggers like this: