ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ , , ৪ রজব ১৪৪১

নারীরাই শান্তি এনেছে ফিনল্যান্ডে…

আরিফা রহমান রুমা, অতিথি প্রদায়ক। । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জানুয়ারি ৩০, ২০২০ ৯:২৩ সকাল

ঢাকা :: ফিনল্যান্ড বিশ্বের ধনী এবং সুখী দেশের একটি।এই ৪ তরুনীর সবাই ফিনল্যান্ডের নাগরিক। তাঁদের সবার বয়স ৩৫ এর নীচে।

সর্ববামে ৩২ বছর বয়সী লি এন্ডারসন, দেশটির শিক্ষামন্ত্রী। ।যে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা বিশ্বের সেরা।শিক্ষকদের বেতন সর্বাধিক।

দ্বিতীয়জন হলেন উপপ্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী ক্যাটরি কুলমানি, উনার বয়স ৩২, যিনি সে দেশের জন্য ৫৫ বিলিয়ন ইউরোরও বেশি বাজেট প্রণয়ন করবেন অর্থাৎ বাংলাদেশী টাকায় যার পরিমান ৬ লাখ কোটি টাকারও বেশি।

তৃতীয়জন হলেন সেই দেশটির ৩৪ বছর বয়সী প্রধানমন্ত্রী স্যান্না মেরিন, এর আগে তিনি পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব পালন করেন।

চতুর্থজন অর্থাৎ সর্বডানে রয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী মারিয়া ঐশালো। তিনি হলেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং সে দেশের অপরাধপ্রবণতা বিশ্বে ন্যূনতমের একটি। পৃথিবীর সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত ৩ টি দেশের একটি ফিনল্যান্ড।

ফিনল্যান্ডের সংসদ সদস্যদের ৪৭ ভাগ নারী।সেখানে রাজনীতি করতে হলে প্রচুর টাকা বা পেশী শক্তির কোনটিরই প্রয়োজন হয়না। সেখানকার জনগন প্রখর ব্যক্তিত্বসম্পন্ন ফলে তাঁরা সত্যকে সত্য আর মিথ্যাকে মিথ্যা বলেন।তাঁরা কেবলমাত্র নিজের আর্থিক এবং ক্ষমতা বা সম্মান বাড়াতে দেশের সহজ সরল সাধারন মানুষের ধর্মীয় অনুভুতিকে পুঁজি করে সমানে মিথ্যাচার করেন না।সেখানে কেউ নারীকে তেতুল ভেবে লোলুপ দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকেনা। সেখানকার পুরুষেরা বীপরিত আদর্শের নারীকে অশালীন গালাগাল করে সময় নষ্ট করার চেয়ে নিজের এবং দেশের কাজে অধিক মনোযোগী থাকে।


%d bloggers like this: