ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ , , ৭ রবিউস সানি ১৪৪১

বিহারি ক্যাম্পে সংঘর্ষে আহত ৫০

নিউজ ডেস্ক,ঢাকা । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০১৯ ১১:৫৫ সকাল

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বিহারি ক্যাম্পে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৫০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে দেড়টার দিকে নিয়মিত ফ্রি বিদ্যুৎ সংযোগের দাবিতে বিহারিরা রাস্তায় অবস্থান নিলে স্থানীয় কাউন্সিল মিজান এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের বুঝাতে গেলে মূলত সংঘর্ষ বেধে যায়; যা এখনো চলছে। সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত ৫০ জন আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন উর্দুভাষী যুব-ছাত্র আন্দোলনের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জুনায়েদ জুয়েল।

জানা গেছে, জেনেভা ক্যাম্পে যেসব বিহারি বসবাস করেন তাদের কাছে বিপুল অংকের বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। যার কারণে গতকাল (শুক্রবার) রাতে সেখানকার বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন করা হয়। এরপর থেকেই বিহারিরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে আসছিলেন। আজ বিহারি ক্যাম্পের পাশের স্থানীয় অধিবাসী এবং কাউন্সিলর তাদের বুঝাতে গেলে এক পর্যায়ে কথা কাটাকাটি হয়। পুলিশ এবং র‍্যাব সদস্যরাও বিহারিদের বুঝানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু ক্ষুব্ধ বিহারিরা তাদের ওপর আক্রমণ করে বসে এবং ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে পুরো এলাকায় সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা এ সময় বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল এবং রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।
উর্দুভাষী যুব-ছাত্র আন্দোলনের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জুনায়েদ জুয়েল জানান, বেশ কিছুদিন ধরে জেনেভা ক্যাম্পে নিয়মিত বিদ্যুৎ প্রদান করা হচ্ছে না। দিনের বেলা তো বিদ্যুৎ থাকেই না রাতের বেলায়ও বিদ্যুৎ বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে। এতে শিক্ষার্থীরা জেএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে পারছে না।
তিনি বলেন, আমাদের বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে উচ্চ আদালতের নির্দেশ থাকলেও বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ তা মানতে নারাজ।
জুনায়েদ জুয়েল দাবি করেন, বিদ্যুতের দাবিতে শান্তিপূর্ণভাবে গজনবী রোডে অবস্থান নিলে পুলিশ ক্যাম্পবাসীদের ওপর লাঠিচার্জ করে। এরপর তারাও উত্তেজিত হয়ে পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এ সময় পুলিশ রেসিডেন্সিয়াল কলেজের সামনে থেকে রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল নিক্ষেপ করছে। এ ঘটনায় ৫০ জনেরও বেশি বিহারি আহত হয়েছেন বলে দাবি করেন তিনি।




%d bloggers like this: