ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ , , ৩ রজব ১৪৪১

রোহিঙ্গা নারীদের বাংলাদেশি পাসপোর্টে বিদেশ পাঠাত চক্রটি

নিউজ ডেস্ক,ঢাকা । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জানুয়ারি ২৬, ২০২০ ৬:১৩ দুপুর

 

বাংলাদেশি পাসপোর্ট দিয়ে রোহিঙ্গা নাগরিকদের বিভিন্ন দেশে পাচার করছে একটি চক্র। এ ক্ষেত্রে প্রধান টার্গেট করা হচ্ছে রোহিঙ্গা নারীদের। রোববার (২৬ জানুয়ারি) রাজধানীর বাড্ডা-আফতাবনগর এলাকায় ইমপেরিয়াল কলেজের বিপরীতে ২ নম্বর সড়কের ৪০ নম্বর বাসায় অভিযান চালিয়ে এমনই একটি মানবপাচারকারী চক্রের সন্ধান পেয়েছে র্যাব-৩।

ওই বাসা থেকে ১৩ রোহিঙ্গা নারীকে উদ্ধারসহ আটক করা হয়েছে চক্রের দুই সদস্যকে। তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ পাসপোর্ট, ভুয়া জন্মনিবন্ধনের কপি, জন্মনিবন্ধন ফরম এবং পাসপোর্ট ফরম উদ্ধার করা হয়েছে। আটক মানবপাচারকারী চক্রের দুই সদস্য হলেন- কবির আহমেদ (৪০) ও এমরান (২৮)।

র্যাব-৩ এর অপারেশন অফিসার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবিএম ফাইজুল ইসলাম প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে জানান, আটক কবির সাত মাস আগে এই বাসাটি ভাড়া নেন। তিনি রােহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে নারীদের বিভিন্ন পন্থায় ঢাকায় নিয়ে আসেন। চক্রের পলাতক দুই সদস্য হাবিব এবং ইমরান পাসপোর্ট অফিসের অসাধু কর্মকর্তাদের সহযােগিতায় সেসব নারীদের বাংলাদেশি পাসপাের্ট পাওয়ার ব্যবস্থা করে দিতেন।

এরপর রোহিঙ্গা নারীদের বাংলাদেশি পরিচয়ে মালয়েশিয়া, দুবাইসহ বিভিন্ন দেশে উচ্চমূল্যে আন্তর্জাতিক পাচারকারীচক্রের কাছে বিক্রি করে দেয়া হতো। চক্রের অন্য সদস্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া উদ্ধারকৃত রোহিঙ্গা নারীদের কক্সবাজারের ক্যাম্পে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে বলেও জানান তিনি।

র্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল রকিবুল হাসান জানান, আটক কবির একটি ট্রাভেল এজেন্সিতে কাজ করেন। উদ্ধার ১৩ রোহিঙ্গা নারীকে পাচারের উদ্দেশে ওই বাসায় এনে রাখা হয়েছিল। তাদের সড়কপথে ভারত হয়ে মালোশিয়ায় পাচারের উদ্দেশ্য ছিল বলেও জানান তিনি।


%d bloggers like this: