ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ , , ৩ রজব ১৪৪১

ষড়যন্ত্রের চোরাইপথ দিয়ে তারা বঙ্গবন্ধু কন্যাকে ক্ষমতা থেকে হঠাতে চায়-ওবায়দুল কাদের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২০ ৩:৪২ দুপুর

চট্টগ্রাম :: ষড়যন্ত্রের চোরাইপথ দিয়ে তারা বঙ্গবন্ধু কন্যাকে ক্ষমতা থেকে হঠাতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আন্দোলন-সংগ্রামে যারা নেত্রীকে পরাজিত করতে পারেনি, তারা আজকে ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে। ষড়যন্ত্রের চোরাইপথ দিয়ে তারা বঙ্গবন্ধু কন্যাকে ক্ষমতা থেকে হঠাতে চায়। আওয়ামী লীগ সম্পাদক বলেন, ষড়যন্ত্র হচ্ছে। চ্যালেঞ্জ আছে। তবে এসব মোকাবিলা করে এগিয়ে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা। এ মুহূর্তে শেখ হাসিনার পাশে একজন বিশ্বস্ত সাহসী মানুষ হিসেবে মেজর জেনারেল জয়নুল আবেদীনের খুব প্রয়োজন ছিল।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) লোহাগাড়ার চুনতীতে প্রধানমন্ত্রীর প্রয়াত সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীনের স্মরণে আয়োজিত নাগরিক শোকসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীনের বড় ভাই ইসমাইল মানিকের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ, আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী, সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক, কানিজ ফাতেমা, ওয়াসিকা আয়েশা খান।

বক্তব্য দেন, সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক এবং প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ত্রাণ ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম আহমেদ, উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

তিনি বলেছেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে সোনার মানুষের দরকার। তবে এখন সেই সোনার মানুষের বড় অভাব রাজনৈতিক অঙ্গনে। সভায় ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচনের আগে আমাদের রাজনীতিকরা মানুষকে কাছে টানে। অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে রঙ্গিন বেলুন উড়ায়। মনে হয় তারা কত জনদরদী।

‘তবে নির্বাচন চলে গেলে, নির্বাচিত হয়ে গেলে- তারা অবলীলায় সব কিছু ভুলে যায়। এতে নির্বাচনের সময় আমরা যে মানুষের সঙ্গে অভিনয় করি নির্বাচনের পর সেটা মানুষ বুঝতে পারে।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী, জনগণের সঙ্গে গণভবনের সেতুবন্ধন রচনা করেছিলেন জয়নুল আবেদীন। সৈনিক হয়েও তার গণ্ডি পেরিয়ে জনগণের সঙ্গে অবাধে মিশে যেতে পারতেন তিনি। তার মধ্যে অহংকার কখনও দেখিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জয়নুল আবেদীন ছিলেন একজন আপোষহীন কর্মবীর। তার গ্রামে এলে বোঝা যায়, একজন মানুষ শেকড়ের টানে নিজ জন্মভূমির জন্য কি করতে পারেন। এ অন্ধকার গ্রামে শিক্ষার আলো ছড়িয়েছেন জয়নুল আবেদীন।

 


%d bloggers like this: