বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১

ভালুকায় তাঁতী লীগের কমিটি নিয়ে ধুম্রজাল

সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জানুয়ারী ১০, ২০২১ ২০:৪৬ পিএম

ভালুকায় তাঁতী লীগের কমিটি নিয়ে ধুম্রজাল

সাজ্জাদুল আলম খান. ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অন্যতম সহযোগী সংগঠন বাংলাদেশ তাঁতী লীগ। পাকিস্তান আমলে ১৯৬৫ সালে পূর্ব পাকিস্তান তাঁতী সমিতির নামে যাত্রা শুরু হয়েছিল আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনটির, এরপর বাংলাদেশ তাঁতী সমিতি হয়ে ২০০৩ সালে বাংলাদেশ তাঁতী লীগ নাম হয় এর।
প্রায় ১৮ বছর ধরে সুনামের সহিত তাঁতী লীগ পরিচালিত হয়ে আসছে। তথাপি কোন সংগঠন পরিচালনা করতে গেলে নানাবিধ সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় তারই পরিপ্রেক্ষিতে ময়মনসিংহের ভালুকায় তাঁতী লীগের কমিটি নিয়ে ধ্রু¤্রজাল তৈরি হয়েছে।
বর্তমান সরকারের তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার পূর্বের তাঁতী লীগের ৬১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি এ.এম. কামরুজ্জামান (সভাপতি) এস এইচ ফরহাদ (সাধারণ সম্পাদক) বিলুপ্ত করে জয়নাল আবেদীন (সভাপতি) মেহেদী হাসান রিফাত কে (সাধারণ সম্পাদক) করে নতুন কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়। পরবর্তীতে জয়নাল-মেহেদির কমিটি ২০২০ সালের ২ ডিসেম্বর বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।
পূর্বের কামরুল-ফরহাদ কমিটিকে আবারো নতুন করে ২০২০ সালের ২৪ শে ডিসেম্বর তারিখে ময়মনসিংহ জেলা তাঁতী লীগ আবারো অনুমোদন দেন।
পরের ঘটনা কিছুটা ভিন্ন খাতে মোড় নেয়, ২০২১ সালের ৭ ই জানুয়ারি জয়নাল-মেহেদি কমিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জেলা শাখার তাঁতী লীগের প্যাডে জেলা সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত অনুলিপির কপি তাদের স্বীয় ফেসবুকে প্রকাশ করে তাদেরকে ময়মনসিংহ জেলা তাঁতী লীগের অনুমোদিত কমিটি দাবি করেন যা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের ফেসবুকেও দেওয়া হয়।
এ বিষয়ে জয়নাল-মেহেদি কমিটির সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান রিফাতের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কামরুল-ফরহাদ কমিটি বৈধ নয় বরং তিনি নিজেদের কমিটিকে ময়মনসিংহ জেলা তাঁতী লীগের অনুমোদিত এবং বৈধ বলে দাবী করেন।
কামরুল-ফরহাদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক এস এইস ফরহাদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ময়মনসিংহ জেলা তাঁতী লীগের প্যাডে জয়নাল-মেহেদি কমিটি জাল করে ফেসবুকে নিজেদেরকে অনুমোদিত কমিটি বলে প্রচারণা চালায় সত্যিকার অর্থে তাদের কোনো বৈধতা নেই তিনি আরো বলেন একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি কখনোই মেয়াদের আগে বিলুপ্ত হতে পারেনা এটি গঠনতন্ত্রের সাংগঠনিক নিয়মের পরিপন্থী।
ময়মনসিংহ জেলা তাঁতী লীগের সভাপতি মোঃ তাজুল ইসলাম জুয়েল বলেন ২০২০ সালের ২৪ ডিসেম্বর কামরুল-ফরহাদ কমিটির অনুমোদন দিয়েছি তা বৈধ এবং বলবৎ আছে। তিনি জয়নাল-মেহেদি কমিটিকে অবৈধ বলে আখ্যায়িত করেন। তিনি আরও বলেন, আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমাদের স্বাক্ষরিত চিঠি বা কমিটির কাগজ মাঝেমধ্যে প্রকাশ করে থাকি হয়তো সেখান থেকেই আমাদের স্বাক্ষর জাল করে জয়নাল-মেহেদি কমিটি আমাদের জেলা তাঁতী লীগের প্যাড তৈরি করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে। আমরা এ বিষয়ে যথাযথ ভাবে অবগত আছি এবং স্থানীয় এমপি মহোদয়ের সাথে কথা বলেছি। সাংগঠনিকভাবেও আমরা জেলা নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা করে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

ময়মনসিংহ জেলা তাঁতী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমানুল ইসলাম জলিল বলেন, জেলা তাঁতী লীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের স্বাক্ষর জালিয়াতি করে যারা নিজেদের প্রভাব খাটিয়ে নেতা হওয়ার চেষ্টা করেছেন তাদের বিরুদ্ধে মামলা সাজানো হয়েছে। কি ধরনের মামলা? জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের স্বাক্ষর জালিয়াতি এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য মানহানির মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছি আমরা।




বিএনপি অতীতেও নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে তারা বিভিন্ন জায়গায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়েছে : তথ্যমন্ত্রী আওয়ামী পুলিশ বাহিনী শতভাগের চেয়ে বেশি দায়িত্ব পালন করেছে : খসরু নির্বাচনী সহিংসতা: পাহাড়তলীতে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন বিএনপির কাউন্সিলর প্রার্থী ইসমাইল বালী আটক সৌদিতে পানির ট্যাংক পরিষ্কার করতে গিয়ে ৩ বাংলাদেশির মৃত্যু জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী : রেজাউল দেশ উন্নত হওয়ায় মানুষ ভোটে আগ্রহ হারিয়েছে: ইসি সচিব এই ভ্যাকসিনে দেশ করোনামুক্ত হবে: প্রধানমন্ত্রী সাতকানিয়া পৌর নির্বাচনে আ.লীগকে সমর্থন দিয়ে সরে গেলেন বিএনপির প্রার্থী প্রার্থীর মৃত্যুতে চসিকের ৩১নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ভোট পেছাল