শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০

৩০ হাজার শ্রমিককে ফ্রি চিকিত্সা দিয়েছেন এই চিকিৎসক

সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ ২২:০১ পিএম

৩০ হাজার শ্রমিককে ফ্রি চিকিত্সা দিয়েছেন এই চিকিৎসক

কায়রুজামান :: চলতি বছর নোবেল শান্তি পুরষ্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন বাংলাদেশি মার্কিন চিকিৎসক রুহুল আবিদ ও তার অলাভজনক সংস্থা হেলথ অ্যান্ড এডুকেশন ফর অল-হায়েফা। ম্যাসাচুসেটস বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তাবে এ পুরষ্কারের জন্য মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সুবিধাবঞ্চিত মানুষের স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্রের ব্রাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের আলপার্ট মেডিকেল স্কুলের অধ্যাপক রুহুল আবিদের সংস্থাটি।

 

২০১৩ সালে ভয়াবহ রানা প্লাজা ধসের পর সৃষ্ট মানবিক পরিস্থিতিতে পোশাক শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সেবা দেয়ার তাগিদ অনুভব করেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন চিকিৎসক ডা. রুহুল আবিদ। তাদের চিকিৎসায় প্রতিষ্ঠা করেন হেলথ অ্যান্ড এডুকেশন ফর অল বা হায়েফা।

সুবিধাবঞ্চিতদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার পাশাপাশি গত তিন বছরে প্রতিষ্ঠানটি প্রায় ৩০ হাজার পোশাক শ্রমিককে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিয়েছে। নারী ও পোশাক শ্রমিকের জরায়ু ক্যানসার স্ক্রিনিং ও চিকিৎসাও দেয় হায়েফা। কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের চিকিৎসার পাশাপাশি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় দক্ষতা তৈরির প্রশিক্ষণ দিচ্ছে তারা। স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতের পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণে সহায়তা করছে হায়েফা। প্রযুক্তিগত উন্নয়নের মাধ্যমেও স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছে ডা. আবিদের প্রতিষ্ঠান।

 

মানবিক কাজের জন্য ম্যাসাচুসেটস বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তাবে নোবেল শান্তি পুরষ্কারের জন্য এবার মনোনয়ন পেলেন যুক্তরাষ্ট্রের ব্রাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের আলপার্ট মেডিকেল স্কুলের অধ্যাপক ডা. রুহুল আবিদ ও তার প্রতিষ্ঠান হায়েফা।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস ও জাপানের নাগোয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মোলিকুলার বায়োলজি ও জৈব রসায়নে পিএইচডি অর্জন করা ডা রুহুল আবিদ ২০০১ সালে হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুল থেকে ফেলোশিপ শেষ করেন।

ডা. আবিদ এবং তার সংস্থা জনকল্যাণমূলক কাজের জন্য ২০১৮ সালে গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জস কানাডার 'স্টারস ইন গ্লোবাল হেলথ' পুরষ্কার পায়। এ বছর নোবেল শান্তি পুরষ্কারের জন্য ২শ ১১ জন মনোনীত হয়েছেন। রয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মনোনীতদের মধ্য থেকেই আগামী অক্টোবরে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করবে নরওয়ের নোবেল কমিটি।