ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০ , , ২৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

ডা. মঈন কি অসময়ে নাকি অবহেলায় চলে গেলেন?

সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: এপ্রিল ১৫, ২০২০ ৩:৫০ দুপুর

[addtoany]

|| নূর মোহাম্মদ (নূর) || দোহা ( কাতার) ||

◾️ডাক্তার মইনউদ্দিনের অসময়ে চলে যাওয়ার চাইতে অবহেলায় চলে যাওয়া লিখলে বাড়িয়ে বলা হবে না। মেডিসিন ও হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ সিলেটের ওসমানি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সহকারি অধ্যাপক ডাক্তার মইন উদ্দিন যাকে মানুষ গরীবের ডাক্তার নামে জানতো। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় তাঁকে পিপিই দিতে পারেনি, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হবার পর নিজ শহরে-হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা কপালে জোটেনি। চিকিৎসার জন্য ঢাকা আনার পথে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সের কথা বাদ দিলাম একটি সরকারি অ্যাম্বুলেন্স ভাগ্যে জোটেনি। এখন তাঁকে করোনা শহীদ, রিয়েল হিরো, ফ্রন্ট-যোদ্ধার খেতাব, জীবন বীমার টাকা, সরকারি অনুদান এসবকিছু তার চলে যাওয়াকে কী পরিশোধ্য করা যাবে?
◾️আমাদের মধ্যে আত্ম সমালোচনা, ক্ষমা চাওয়া রেওয়াজ তৈরি হয়নি। নিজ মন্ত্রণালয়ের বা সরকারের সামর্থ্য, সক্ষমতা, প্রস্তুতি নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রী জাতিকে সত্য বলেননি, সবসময় একটা ধ্রুমজালে আটকে রেখেছেন। আমরা একদিনে চাইলে চীন, জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র বা যুক্তরাজ্য হতে পারবো না – জাতি হিসেবে আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতা আছে। জনগণও সেটা অনুধাবন করে। গতবছর দেশে ডেঙ্গু প্রলয়ের সময় সরকারি আদেশে যাকে বিদেশ ভ্রমণ থেকে [ব্যক্তিগত সপরিবারে] ফিরিয়ে আনতে হয়েছিলো; #দায়িত্ববোধ শব্দটা তার কাছে জিহ্বা-মোচড়ানোর মত। ‘তাহার’ জায়গায় একজন পেশাদার, সূক্ষ্মবুদ্ধি, মেধাবী, কর্মচঞ্চল মানুষকে দায়িত্ব দিলে প্রিয় দল বাংলাদেশ আওয়ামি লীগের বা সরকারের কী স্বরুপ নষ্ট হবে জানি না।
◾️অদৃশ্য শত্রু করোনা মোকাবেলায় ডাক্তার মইন উদ্দিন হয়ত শেষ যোদ্ধা নন তবে নিশ্চিত একজন প্রথম অরক্ষিত সম্মুখ-যোদ্ধা ছিলেন।

|| লেখক : সভাপতি, বাংলাদেশ রাইটার্স-জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, কাতার ||