ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০ , , ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

তদন্ত কমিটির জন্য যান ও অস্ত্রধারী পুলিশ চেয়ে ইসির চিঠি

নিউজ ডেস্ক,রংপুর । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯ ৭:৪১ সকাল

[addtoany]

 

রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচন সামনে রেখে ‘নির্বাচনী তদন্ত কমিটি’কে যানবাহন ও অস্ত্রধারী পুলিশ সদস্য দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে (এসপি) চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ইসি সূত্র জানায়, ১৭ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) এই চিঠি দেয় কমিশন।

নির্বাচনী তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন বিচারবিভাগীয় কর্মকর্তাদের মধ্যে একজন যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ, একজন সহকারী জজ। তাদের কাজ হলো- নির্বাচন-পূর্ব অনিয়ম প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ নিশ্চিত করা।

ইসির সিনিয়র সহকারী সচিব (আইন-১) মো. আবু ইব্রাহিমের সই করা ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে নির্বাচনী তদন্ত কমিটির ক্ষেত্রবিশেষে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিতে পারে। সেই সঙ্গে নির্বাচনের দিন আচরণ বিধিমালা যথাযথভাবে পালিত হচ্ছে কি না, তা পর্যবেক্ষণের প্রয়োজন রয়েছে এই কমিটির। তদন্ত কাজে ঘটনাস্থল অথবা ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনের সময় নিরাপত্তার স্বার্থে কমিটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে দুইজন অস্ত্রধারী পুলিশ সদস্য নিয়োগ আবশ্যক।

আর কমিটির কর্মকর্তাদের চাহিদা ও প্রয়োজন অনুসারে সার্বক্ষণিক জিপগাড়ি/মাইক্রোবাস/স্পিডবোট এবং ক্ষেত্রবিশেষে ট্রাক/পিকআপ ভ্যান/মোটরসাইকেল সরবরাহের জন্য জেলা প্রশাসককে এবং পুলিশ দেয়ার জন্য পুলিশ সুপারকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো।

তাতে বলা হয়, ‘নির্বাচনকালীন সময়ে নির্বাচনপূর্ব অনিয়ম সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখা গেলে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন পরিচালনার ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।’

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারমন্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে রংপুর-৩ আসন শূন্য হয়। গত ১ সেপ্টেম্বর এই আসনে উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন ছিল ৯ সেপ্টেম্বর, বাছাই হয় ১১ সেপ্টেম্বর এবং প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল ১৬ সেপ্টেম্বর। আগামী ৫ অক্টোবর ভোট হবে এ আসনে।