ঢাকা, সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০ , , ২২ জ্বিলকদ ১৪৪১

দরজা ভেঙে স্বামীর গলায় অস্ত্র ঠেকিয়ে গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ

সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জুন ২৪, ২০২০ ৮:১৭ সকাল

[addtoany]

৬ লম্পটের লালসার শিকার হলেন দুই শিশু সন্তানের মা এক গৃহবধূ। এতে লম্পট পরিচয়ে ওই দুর্বৃত্তরা গৃহবধূকে পালা করে ধর্ষণ করে ক্ষান্ত হয়নি। তারা ঘটনা কাউকে না জানাতে এবং চিকিৎসা দেওয়া থেকেও বঞ্চিত করেছিল গৃহবধূকে।  

চাঁদপুর সদরের পদ্মা ও মেঘনা নদী বেষ্টিত রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের দুর্গম লক্ষ্মীরচর। গত রোববার (১৪ জুন) ভোর রাতে একদল দুর্বৃত্ত জেলে পরিবারের এক গৃহবধূকে পালা করে এমন গণধর্ষণের ঘটনা ঘটায়।ওই গৃহবধূ জানান, একই এলাকার ফিরোজ, সবুজ, বাবু, মোস্তফা এবং মুখোশপড়া আরো ২ জন। এই চার যুবক তাদের ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। এসময় কিছু বুঝে উঠার আগেই যুবকদের একজন গৃহবধূর স্বামীর গলায় ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে দেয়। পরে পালাক্রমে ওই গৃহবধুকে ধর্ষণ করে। যাবার সময় যুবকরা হুমকি দিয়ে যায় এই বলে যে, এমন ঘটনা কাউকে জানালে গোটা পরিবার গুম করে ফেলে দেওয়া হবে।এরপর বিনা চিকিৎসায় দুই দিন অবরুদ্ধ ছিলেন ধর্ষিতার পরিবার। পরে গ্রাম পুলিশের সহায়তায় কৌশলে পালিয়ে আসেন শহরে। পরে সদর মডেল থানা পুলিশের সহযোগিতায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয় গৃহবধূকে।হাসপাতালে চিকিৎসা ও মানসিক শক্তি পেয়ে ওই গৃহবধূ কিছুটা স্বাভাবিক হলেও এখনো ভুলতে পারছেন না সেই পাশবিক নির্যাতনের চিত্র। একটু পরপরই ভেসে উঠে পাষণ্ডদের মুখগুলো। তাই ধকল কাটিয়ে উঠলেও এখনো ভয় পাচ্ছেন তিনি। তারপরও সেই বিভীষিকাময় ঘটনার বর্ণনা দিয়ে উঠতি বয়সী অভিযুক্তদের কয়েকজনের নামও জানালেন তিনি।ঘটনার শিকার গৃহবধূর স্বামীও সেই বর্বরতার কথা জানান। তিনি বলেন, চরের সাত পাঁচে নেই তিনি। নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন। বিনা কারণে তার স্ত্রীর ওপর এমন বর্বরতা হয়েছে। হুমকির কারণে ফের চরে যেতে ভয় পাচ্ছেন তিনি। ঘটনার বিচার দাবি করে অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি জানান তিনি। এই নিয়ে ৬ যুবককে আসামি করে থানায় মামলা করেন ধর্ষিতা গৃহবধূ।স্থানীয়রা জানিয়েছেন, লক্ষ্মীরচরে গত কিছু দিন ধরে গাজী ও বকাউল গোষ্ঠীর মধ্যে আধিপত্য নিয়ে দ্বন্দ্ব এবং লুটপাট  চলছে। এরমধ্যে এই দুই পক্ষের মারামারিতে গাজী বংশের লোকমান হোসেন একজন মারা যান। আর সেই দ্বন্দ্বের প্রতিশোধ নিতে গাজী গোষ্ঠীর বখে যাওয়া যুবকরা নিরীহ এই পরিবারের গৃহবধূর ওপর ওপর এমন নির্যাতন করেছে। তবে এই নিয়ে রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারী নিজের অসুস্থতার কথা জানিয়ে এই নিয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হননি।এদিকে, মঙ্গলবার (১৬ জুন) সন্ধ্যায় চাঁদপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহেদ পারভেজ চৌধুরী জানান, মামলাটি তদন্ত এবং আসামিদের দ্রুত গ্রেফতারের জন্য সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হারুনুর রশিদকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।ধর্ষিতার চিকিৎসা ও পরীক্ষা নিরীক্ষা সম্পর্কে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সুজাউদৌলা রুবেল জানান, নির্যাতিতার শারীরিক অবস্থা এখন বেশ স্থিতিশীল। ধর্ষণের আলামত নিশ্চিত হবে তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হবার পরে।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পদ্মা ও মেঘনা নদীবেষ্টিত রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নের বিচ্ছিন্ন বেশ কয়েকটি চরের মধ্যে লক্ষ্মীরচর একটি। অন্য চরের মতো এখানকার মানুষের মূল পেশা হচ্ছে নদীতে মাছ ধরা। আর এসব জেলেদের নিয়ন্ত্রণ করার জন্য গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে। এই নিয়ে আগেও লুটপাট, খুন ও ধর্ষণের মতো ঘটনা ঘটেছে।