ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০ , , ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

পঙ্গপালের আক্রমণে দিশেহারা পাকিস্তান, জরুরি অবস্থা জারি

আন্তজাতিক ডেস্ক । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২, ২০২০ ৫:৪৮ দুপুর

[addtoany]

 

কিছুতেই সমস্যা পিছু ছাড়ছে না ইমরান খান সরকারের। একটার পর একটা সমস্যা লেগেই রয়েছে। বছর না পেরোতে আবারও পঙ্গপালের আক্রমণের শিকার হয়েছে পাকিস্তান। পঙ্গপালের হানায় জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে পাকিস্তানবাসীর। এ নিয়ে রীতিমতো উষ্মা প্রকাশ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পঙ্গপালের এই প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে এবং শস্যের ক্ষতি রুখতে জরুরি অবস্থাও জারি করতে হয়েছে ইমরান খানকে।

পাকিস্তানের গণমাধ্যম জানায়, দেশটির পূর্বাঞ্চলের সিন্ধু প্রদেশে প্রথমে এ পঙ্গপালের হামলা শুরু হলেও ধীরে ধীরে তা ছড়িয়ে পড়ছে বিভিন্ন অংশে। এতে জন-জীবন বিপর্যস্ত হওয়ার পাশাপাশি ফসলেরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন সরকার ইতোমধ্যে দেশটিতে জরুরি অবস্থা জারি করেছে।

দ্যা ডনের খবরে বলা হয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরে সিন্ধু প্রদেশের ফসলি জমির ব্যাপক ক্ষতি করছে পঙ্গপাল। বর্তমানে সিন্ধু প্রদেশের অধিকাংশ জমির ফসল নষ্ট করে তারা ছড়িয়ে পড়ছে পাঞ্জাবের বিভিন্ন অংশে। এতে দেশটির পরিস্থিতি জটিল হয়ে পড়েছে।

আর পঙ্গপালের আক্রমণ ঠেকাতে চারটি প্রদেশের মন্ত্রী ও সরকারের নীতি-নির্ধারকদের নিয়ে গত শুক্রবার জরুরি বৈঠকে বসেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বৈঠকে পঙ্গপালের আক্রমণ থেকে বাঁচতে জাতীয় জরুরি অবস্থার কথা ঘোষণা করেন তিনি।

ওই বৈঠকে একটি জাতীয় কর্মপরিকল্পনা অনুমোদিত হয়। যেখানে বর্তমানের এই সঙ্কট কাটিয়ে উঠতে ৭.৩ বিলিয়ন পাকিস্তানি রুপির প্রয়োজন বলে জানান ইমরান খান।

এর আগে, ২০১৯ সালের মার্চ মাসে পাকিস্তানে পঙ্গপালের আক্রমণ দেখা দেয়। সেই সময় সিন্ধু, দক্ষিণ পাঞ্জাব এবং খাইবার পাখতুনখাওয়াতে প্রায় ৯০ লাখ হেক্টর জমিতে ছড়িয়ে পড়েছিল পতঙ্গদের এই উপদ্রব। যার ফলে তখন ক্ষতি হয়েছিল কোটি কোটি টাকার ফসল।