ঢাকা, শুক্রবার, ৫ জুন ২০২০ , , ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

সৌদি আরবে করোনায় রেমিট্যান্স যোদ্ধা যুবক দিদার এর অকাল মৃত্যু।

সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: মে ২৩, ২০২০ ৭:২০ সকাল

[addtoany]


কাজী হাবিব রেজাঃ স্টাফ রিপোর্টার, সৌদি আরবে করোনায় বাংলাদেশি রেমিট্যান্স যোদ্ধা যুবকের অকাল মৃত্যু হয়েছে।
সৌদি আরবে রিয়াদে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন দিদারুল আলম দিদার (৪৬) নামে এক বাংলাদেশি যুবক। শুক্রবার (২৩ মে) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ১০ টার দিকে রিয়াদে এক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নিহত দিদার চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ১২ নং চিকনদন্ডী ইউনিয়ন ০৬ ওয়ার্ড বহদ্দারবাড়ীর মৃত মোহাম্মদ ইউনুসের ছেলে। জানা গেছে তিনি দুই সন্তানের জনক।

পারিবারিকভাবে ও তারসঙ্গে সৌদি আরবের রিয়াদে কাজ করা আরেক প্রবাসী দিদারের মৃত্যুর সংবাদটি নিশ্চিত করেছেন।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর মিছিলে শুক্রবার যোগ হলো রেমিট্যান্স যোদ্ধা দিদারুল আলম দিদার । তার মৃত্যুতে রিয়াদস্হ বাংলাদেশি কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে৷

এ-ই প্রথম গতকাল হাটহাজারী থানার ১২ নং চিকনদন্ডী ইউপিতে প্রবাসে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কোন প্রবাসী মারা গেলেন।
সদা হাস্যজ্জ্বল দিদার অকালে অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর খবর এলাকায় পৌঁছালে সর্বত্র শোকের ছায়া নেমে আসে।

আমিরাত প্রবাসী জসিমের ফেইসবুক স্ট্যাটাসে জানা গেছে দিদার রিয়াদ যুবলীগের সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন।একসময় দেশেও ছাত্রলীগ যুবলীগের সংগঠনের একনিষ্ঠ কর্মী ছিলেন নিহত দিদার।

দিদারের বন্ধু একই এলাকার আরেক জার্মান প্রবাসী জিয়া উদ্দিন জাবেদ টেলিফোনে বলেন, যুবলীগের একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে দিদার দেশে থাকা অবস্থায় দল এবং এলাকার সকল ভালো কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখতেন। প্রায় এক দশকের কাছাকাছি সময় ধরে প্রবাস জীবন কাটানো দিদার বিদেশেও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সংগ্রামে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছিলেন। তার অকাল মৃত্যুর খবরে আমাদেরকে হতবাক করেছে।তিনি বন্ধুবান্ধব ও প্রবাসীদের পক্ষ থেকে দিদারের মৃত্যুতে গভীর শোক ও তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

১২ নং চিকনদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধা মোহাম্মদ দিদারুল আলম দিদার এর মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য সৌদি আরব ও কুয়েত এ থাকা কোন প্রবাসী বাংলাদেশী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলে সে-সব দেশের নিয়ম অনুযায়ী করোনায় মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তির লাশ দেশে ফেরত পাঠানো হবে না। নিয়ম অনুযায়ী দিদারের লাশ সৌদি আরবেই দাফন করা হতে পারে।